শিক্ষা ব্যবস্থায় পরিবর্তন: ২০২৩-২০২৫

0
131
শিক্ষা ব্যবস্থায় পরিবর্তন

২০২৩ খ্রিস্টাব্দ থেকে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণিতে কোন পরীক্ষা থাকছে না

নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়ন অর্থাঃ শিক্ষা ব্যবস্থায় পরিবর্তন শুরু হবে আগামী ২০২৩ খ্রিস্টাব্দে থেকে ।  তখন থেকে প্রাথমিক পর্যায়ের ১ম ও ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ও মাধ্যমিক পর্যায়ের ৬ষ্ঠ ও ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা নতুন কারিকুলামে অন্তর্ভুক্ত হবে। নতুন কারিকুলামে ১ম থেকে ৩য় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ১০০ ভাগ মূল্যায়ন হবে শিখনকালীন মূল্যায়ন হবে।  অর্থাৎ এখানে ধারাবাহিক বা গাঠনিক মূল্যায়ন হবে। সে হিসেবে ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ থেকে ১ম ও ২য় শ্রেণিতে কোন পরীক্ষা হবে না।

আজ সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) গণভবনে জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখার খসড়া উপস্থাপনা শেষে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে নতুন কারিকুলাম নিয়ে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, শিক্ষার্থীদের জন্য আনন্দঘনেউপায়ে শিক্ষা নিশ্চিত করতে এ শিক্ষাক্রম তৈরি করা হয়েছে। এ শিক্ষাক্রম পাইলটিং হবে আগামী বছর ২০২৩ খ্রি. থেকে শুরু হবে। ২০২৩ খ্রিস্টাব্দের ১ম ও ২য় শ্রেণি ও ৬ষ্ঠ ও ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন শুরু হবে। ২০২৪ খ্রিস্টাব্দের ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণি এবং ৮ম ও ৯ম শ্রেণি এ শিক্ষাক্রমের আওতায় আসবে। এ শিক্ষাক্রমের আওতায় ২০২৫ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে নিয়ে আসা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ শিক্ষাক্রম অনুমোদন দিয়েছেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, ১ম থেকে ৩য় শ্রেণির শিক্ষার্থীর শতভাগ মূল্যায়ন হবে শিখনকালীন। নতুন কারিকুলামে এ শ্রেণিগুলোতে পরীক্ষা হবে না।

২০২৫ খ্রিস্টাব্দ থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা উঠে যাচ্ছে

২০২৫ ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা নতুন শিক্ষাক্রমের আওতায় আসবে। সে হিসেবে আগামী ২০২৫ খ্রিস্টাব্দ থেকে ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা উঠে যাচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ২০২৫ খ্রিস্টাব্দ থেকে নতুন কারিকুলামের অন্তর্ভুক্ত হচ্ছেন। সে হিসেবে ২০২৫ খ্রিস্টাব্দ থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা নেওয়ার সুযোগ থাকবে না।

মন্ত্রী বলেন, প্রতিক্লাস শেষেই পরীক্ষা হবে। কিন্ত পাবলিক পরীক্ষা না। ১ম থেকে ৩য় শ্রেণি ছাড়া সব ক্লাসের শেষেই পরীক্ষা হবে। দশম শ্রেণির শেষে  একটি পাবলিক পরীক্ষা হবে  এবং একদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির পর পরীক্ষা হবে।

এসময় শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, পরীক্ষা ও মূল্যায়ন এক করে দেখলে হবে না। শিক্ষা ক্ষেত্রে গাঠনিক মূল্যায়ন গুরুত্ব পাবে বলে ধারণা করছেন শিক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

শিক্ষা উপকরণ কী, শিক্ষা উপকরণ তৈরি ও ব্যবহার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here