নতুন শর্তে বিপাকে প্রাথমিকের ছয় লাখ শিক্ষার্থী

0 306

প্রাথমিকের উপবৃত্তির অর্থ বিতরণে বেঁধে দেওয়া নতুন শর্ত নিয়ে বিপাকে পড়েছে ৬ লাখের বেশি শিক্ষার্থী। এর ফলে মুজিববর্ষ উপলক্ষে জামা-জুতা কেনার এককালীন এক হাজার টাকাও পাচ্ছে না তারা। শর্তে শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন সনদ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। জন্ম নিবন্ধনের কেন্দ্রীয় সার্ভারে সমস্যা থাকায় সনদ সংগ্রহে অভিভাবকরা ব্যর্থ হলেও এমন বিপত্তি দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে।

সূত্র জানিয়েছে, গত বছরের ১৩ ডিসেম্বরে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদ’র মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের উপবৃক্তির অর্থ বিতরণের নতুন চুক্তি করে সরকার। এরপর নতুন করে শিক্ষার্থীদের তথ্য নগদ’র সার্ভারের মাধ্যমে সংগ্রহ শুরু হয়। তবে সার্ভারে আপলোড হওয়া তথ্যের সঙ্গে জন্ম নিবন্ধন সনদ না থাকা এবং অভিভাকরা সঠিক সময়ে সনদ সংগ্রহ করতে না পারায় ছয় লাখ ২৫৬ শিক্ষার্থী উপবৃত্তির টাকা পায়নি।
প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. ইউসুফ আলী জানিয়েছেন, চলতি মাসের ১৫ থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত নতুন করে তথ্য আপলোডের সুযোগ দেওয়া হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তথ্য আপলোড করলে শিক্ষার্থীরা পরবর্তীতে উপবৃত্তির টাকা পাবে।

সর্বশেষ এক কোটি ১২ লাখ ৭৪ হাজার ৭৯০ জনের তথ্য সার্ভারে আপলোড হয়। এর মধ্যে জন্ম নিবন্ধনসহ সঠিক তথ্য থাকায় এক কোটি আট লাখ ১৪ হাজার ৫৩৪ জন শিক্ষার্থীর গত বছরে বকেয়া চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পেয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন শিক্ষক জানিয়েছেন, তথ্য আপলোডে যে এনআইডি নম্বর দেওয়া হবে তা নিবন্ধিত মোবাইল সিমে ব্যবহার করতে হবে। গ্রামের অনেক অভিভাবকের মোবাইলে সিম কার্ড অ্যানালগ এনআইডি দিয়ে নিবন্ধিত। অ্যানালগ এনআইডি কার্ডগুলো স্মার্ট কার্ড হওয়ায় পোর্টালের সঙ্গে মিলছে না। আবার অনেকের সিম নিবন্ধিত নয়। কারও মোবাইল নিবন্ধিত আইডি কার্ডের নামের সঙ্গে মিল নেই। ফলে উপবৃত্তির টাকা পায়নি অনেক শিক্ষার্থী।

সূত্র: শিক্ষাবার্তা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments
Loading...