Take a fresh look at your lifestyle.

হাতের স্পর্শ ছাড়াই হাত ধোয়ার মেশিন পেলো ৬৭ স্কুল

245

হাত দিয়ে স্পর্শ ছাড়া হাত ধোয়ার মেশিন পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার ৬৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিতরণ করা হয়েছে। যা করোনা মোকাবিলায় কাজ করবে। এই হাত ধোয়ার মেশিনটি লোহার স্ট্রাকচার আর ছোট একটি পানির ড্রাম দিয়ে তৈরি করেছে । এটি ব্যবহার করার জন্য হাত দিয়ে স্পর্শ করার প্রয়োজন নেই। করোনার প্রভাব কমে এলে  পরবর্তীতে স্কুলে ক্লাস শুরু হলে এ মেশিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের হাত ধোয়ার কাজে আসবে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৩মে) সকালে বিশেষভাবে তৈরি এ হাত ধোয়ার বেসিন আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধান শিক্ষকদের হাতে তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. খালেদা খাতুন রেখা । এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার কে এম জামান, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি সুব্রত রায়, সাধারণ সম্পাদক হাবিব উল্লাহ ফকিরসহ বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ।

প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৬৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ মেশিন সরবরাহ করার উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা খাতুন রেখা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আব্দুল হাকিম।  এর ব্যয় নির্বাহ করা হয় চলতি অর্থবছরে স্লিপের বরাদ্দ থেকে।

মেশিনটিতে লোহার একটি কাঠামোর নীচে একটি প্যাডেল রয়েছে। পা দিয়ে চাপ দিলেই উপরের ড্রাম থেকে পানি প্রবাহিত হওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এতে বেসিনের নীচে ম্যাজিক পাইপ দিয়ে হাত ধোয়া পানি দূরে নির্দিষ্ট স্থানে চলে যাচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. খালেদা খাতুন রেখা সংবাদ মাধ্যমকে জানান, সাবান দিয়ে ভাল করে হাত ধুতে গ্রামাঞ্চলে সাবানই মূল ভরসা। কিন্তু বাইরে বেরিয়ে বার বার সাবান দিয়ে ধোয়া বেশ অসুবিধাজনক। তাছাড়া  একই ট্যাপ, বেসিন, হ্যান্ডওয়াশের বোতল সবাই ব্যবহার করলে সেখান থেকেও সংক্রমণ ছড়ানোর ভয়তো আছে। আর এই ভাবনা থেকেই তৈরি হয়েছে এমন ওয়াশবেসিন যাতে হাত দিয়ে কোনও কিছু ছোঁয়ার প্রয়োজনই নেই।

এ কাজের কারিগরি সহায়তা প্রদান করেছেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি সুব্রত রায় । তিনি সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, বেসিনের ট্যাপ স্পর্শ না করেই হাতে চলে আসছে পানি। ফলে হাত ধুতে গিয়ে সংক্রমণের সম্ভাবনা এড়ানো যাচ্ছে।- অনলাইন

Comments are closed.